‘বাবুল আক্তারকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়নি’

ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯ | ৫ বৈশাখ ১৪২৬

‘বাবুল আক্তারকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়নি’

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৩:৪৭ অপরাহ্ণ, জুন ২৬, ২০১৬

‘বাবুল আক্তারকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়নি’

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ‘পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়নি। জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজনে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। আইন মেনেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।’

রাজধানীর ধোলাইপাড় উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ঈদ বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে রোববার দুপুরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘বাবুল আক্তারের স্ত্রী হত্যার ঘটনায় সিএমপির (চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ) একটি থানায় মামলা হয়েছে। মামলার বাদী তিনি (বাবুল আক্তার)। এ ঘটনায় কয়েকজন আসামিকে গ্রেফতার ও ব্যবহৃত অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়েছে।’

বাবুল আকতারের কথা উল্লেখ করে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘বাবুল আক্তারকে ডাকা হয়েছিল। তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলেন। আমরা তো আর তাকে সিএনজি বা রিকশায় আসতে বলতে পারি না। সে জন্য পুলিশের গাড়ি পাঠানো হয়েছিল।’

এর আগে শুক্রবার রাতে রাজধানীর বনশ্রী এলাকার শ্বশুর বাড়ি থেকে এসপি বাবুল আক্তারকে নিয়ে যাওয়া হয়। পরদিন শনিবার দুপুরে তাকে বাসায় পৌঁছে দেওয়া হয়।

গত ৫ জুন চট্টগ্রাম নগরীর জিইসির মোড় এলাকায় ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাত ও গুলিতে খুন হন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু।

পাঁচলাইশ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ত্রিরতন বড়ুয়া বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

ডিএমপির ওয়ারী বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত এ বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপ-কমিশনার (ডিসি) সৈয়দ নুরুল ইসলাম।

আরটি/এসএফ/একে