চিনিতে রফতানি শুল্ক বসাচ্ছে ভারত, দাম বাড়ার আশঙ্কা

ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ | ৩ আষাঢ় ১৪২৬

চিনিতে রফতানি শুল্ক বসাচ্ছে ভারত, দাম বাড়ার আশঙ্কা

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:২৯ পূর্বাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৬

চিনিতে রফতানি শুল্ক বসাচ্ছে ভারত, দাম বাড়ার আশঙ্কা

চিনি রফতানির উপর ২৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। অভ্যন্তরীণ বাজার স্থিতিশীল রাখতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। এতে বিশ্ব বাজারে চিনির দাম বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।


ভারতের প্রধান আখ উৎপাদনকারী অঞ্চলগুলোতে খরার কারণে এবার ফলন কম হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর তাই চিনির উৎপাদন কম হতে পারে বলে ধারণা ভারতের খাদ্য মন্ত্রণালয়ের।

প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়েছে, চিনি রফতানির উপর ২৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের ফলে দ্রব্যটির রফতানি কম হবে এবং অভ্যন্তরীণ বাজারের চাহিদা স্থিতিশীল থাকবে বলে ভারতের খাদ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়।

খাদ্যমন্ত্রী রাম বিলাস পাসওয়ান জানান, বিশ্বে চিনির সর্বোচ্চ সংখ্যক ভোক্তার দেশটিতে দাম যাতে নিয়ন্ত্রণে থাকে সেই লক্ষ্যে চিনি রফতানির লাগাম টেনে ধরতেই এই করারোপ করা হচ্ছে।

এক টুইট বার্তায় পাসওয়ান বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারে চিনির দাম বাড়ার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। তাই মুনাফার জন্য ব্যবসায়ীরা চিনির রফতানি বাড়াতে পারে।’

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নতুন কর আরোপের ফলে বিশ্বে চিনির দাম বাড়তে পারে। পরপর দুবছর খরার কারণে এমনিতেই আগামী অক্টোবর থেকে ভারত আমদানি প্রধান দেশে পরিণত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দিল্লিভিত্তিক এক চিনি শিল্প বিশেষজ্ঞ বলেন, 'বাজারে ভারত থেকে রফতানির তেমন প্রত্যাশা না থাকলেও চিনির উপর কর আরোপে ক্ষণস্থায়ী হলেও দাম বাড়বে।'

এ পদক্ষেপের ফলে থাইল্যান্ড ও ব্রাজিলের প্রতিদ্বন্দ্বী রপ্তানিকারকরা লাভবান হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ভারত ২৯ লাখ টন চিনি রফতানি করেছে, যা বিশ্ব রফতানির ৫ দশমিক ৩ শতাংশ।

এদিকে ভারতের এ সিদ্ধান্তের ফলে বাংলাদেশে চিনির দামে কোনো প্রভাব পড়বে না বলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে। দেশের চাহিদার তুলনায় মজুদ পরিস্থিতি ভাল থাকায় গত বছর চিনি আমদানির উপর ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বসিয়েছে সরকার। উপরন্তু বাংলাদেশ থেকে চিনি রফতানি করারও উদ্যোগ রয়েছে বলে জানা গেছে।

জেআই/এসএফ