‘বেলাশেষে’কে ছাড়িয়ে গেল ‘প্রাক্তন’

ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ | ৩ আষাঢ় ১৪২৬

‘বেলাশেষে’কে ছাড়িয়ে গেল ‘প্রাক্তন’

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:১৪ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০১৬

‘বেলাশেষে’কে ছাড়িয়ে গেল ‘প্রাক্তন’

কলকাতার সিনেমা বাণিজ্যে নতুন জোয়ার এনেছিল শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও নন্দিতা রায় পরিচালিত ‘বেলাশেষে’। এবার একই জুটির ‘প্রাক্তন’ হারিয়ে দিল ২০১৫ সালের আলোচিত সিনেমাটিকে।

কলকাতার সংবাদমাধ্যম এবেলা এক প্রতিবেদনে জানায়, ২৭ মে মুক্তি পাওয়া প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা অভিনীত ‘প্রাক্তন’ এক মাসে আয় করেছে ৬ কোটি রুপি। অন্যদিকে ২০০ দিনেরও বেশি সময় ব্যবসা করে ‘বেলাশেষে’ ঘরে তোলে সাড়ে পাঁচ কোটি রুপি।

প্রতিবেদনে এক মাসের মাথায় ২ কোটি রুপি বাজেটের বিপরীতে প্রেক্ষাগৃহ থেকে ৬ কোটি রুপি আয় করাকে ‘অলীক সুখ’(এই নামের একটি ছবিও বানিয়েছিলেন শিবু-নন্দিতা) বলা হয়েছে! সাম্প্রতিক কোনো বাংলা ছবির এই সাফল্য নেই। ‘প্রাক্তন’ বিরল উদাহরণ তৈরি করতে যাচ্ছে, ১১ দিনে তিন কোটি রুপি আয় সে ইঙ্গিতই দিয়েছিল।

‘প্রাক্তন’ প্রসঙ্গে প্রসেনজিৎ বলেন, ‘‘প্রাক্তন’ হিট হবে জানতাম। কিন্তু তিনদিনে যে কোটির অঙ্ক প্রায় ছুঁয়ে ফেলবে সেটা ভাবিনি!’’

সিনেমাটির সাফল্যের পেছনে অন্যতম কারণ হিসেবে ধরা হচ্ছে ‘বেলাশেষে’র জনপ্রিয়তা। এ কারণেই ‘প্রাক্তন’ প্রথম সপ্তাহে ১০১টি হল পেয়েছে। এমনকি সিনেমাটির সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ১৪টি ব্র্যান্ড, যা টালিগঞ্জের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। এ সাফল্য প্রসঙ্গে নির্মাতা শিবু বলেন, ‘‘এই প্রথম পরিবেশকরা এসে ছবি চেয়েছেন। ‘বেলাশেষে’র সাফল্যই যে এর পিছনে, সেটা অস্বীকার করা যায় না।’’

তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, ‘বেলাশেষে’র টানে বড়জোর প্রথম কিছুদিন  হলে যেতেন দর্শক। ছবি খারাপ হলে পরের দিকে টিকিট বিক্রিতে ভাটা পড়ত। পাশাপাশি কাজে দিয়েছে প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটির প্রত্যাবর্তন।

পত্রিকাটি জানায়, ‘প্রাক্তন’-এর টেলিভিশন স্বত্ব এখনো বিক্রি করেননি নির্মাতা। অথচ অধিকাংশ বাংলা ছবিই স্যাটেলাইট রাইটসের ভরসায় বসে থাকে। সব মিলিয়ে নির্মাতা জুটি শিবু-নন্দিতা সাফল্যের জোয়ারে ভাসছেন।  

ডব্লিউএস/এসজে